সদ্য সংবাদ
Home / গুরুত্বপূর্ণ / সিরাজগঞ্জের ১৭ ইউপিতে ৮৮চেয়ারম্যান প্রার্থীর মনোনয়ন দাখিল

সিরাজগঞ্জের ১৭ ইউপিতে ৮৮চেয়ারম্যান প্রার্থীর মনোনয়ন দাখিল

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিরাজগঞ্জ

যমুনাপ্রবাহ.কম : দ্বিতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সিরাজগঞ্জ সদর ও রায়গঞ্জে উপজেলায় ১৭টি ইউনিয়পন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে সদরে ৮টি ইউনিয়ন ও রায়গঞ্জে ৯টি ইউনিয়ন রয়েছে। নির্বাচনের মনোনয়ন জমাদানের শেষ দিনে চেয়ারম্যান, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য ও সাধারন সদস্য পদে প্রার্থীরা উৎসব মুখর পরিবেশে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। সকাল ১০টা থেকে বিকেলে ৫টা পর্যন্ত প্রার্থী ও সমর্থকরা মোটরসাইকেল ও ট্রাক এবং নসিমনসহ বিভিন্ন যানবাহনে শোডাউন করে নির্বাচন অফিস ও উপজেলা অফিসে রিটার্নিং অফিসারের কাছে মনোনয়ন জমা দেন। নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহন না করলেও বিএনপি নেতা ও আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। সদর উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে ৪৪জন এবং সংরক্ষিত ১১১জন ও সাধারন পদে ৩৯৫জন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন।


সয়দাবাদ ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের একক প্রার্থী নবিদুল ইসলাম মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। এছাড়াও সংরক্ষিত ১৪ ও সাধারন পদে ৪৮ জন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন।

বহুলী ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী মঞ্জুরুল ইসলাম, আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে থানা আওয়ামীলীগ সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য গাজী আব্দুল বারী তালুকদার, আওয়ামীলীগ এনামুল হক সরকার, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ইউনিয়ন বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান রুহুল আমিন, বহুলী ইউনিয়ন বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য ফরহাদ হোসেন সেখ ও বহুলী ইউনিয়ন বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য সালেহ মাহমুদ বাবু মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। এছাড়াও সংরক্ষিত ১৪ ও সাধারন পদে ৫৯ জন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন।

রতনকান্দি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী আনোয়ার হোসেন ও বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে আওয়ামীলীগ কর্মী হেলাল উদ্দিন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। এছাড়াও সংরক্ষিত ১১ ও সাধারন পদে ৩৯ জন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন।

বাগবাটী ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম, বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারন সম্পাদক ইউসুফ, প্রস্তাবিত মনসুরনগর থানা আওয়ামীলীগের যুগ্মসম্পাদক আমজাদ হোসেন ও মাহফুজুর রহমান মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। এছাড়াও সংরক্ষিত ১৫ ও সাধারন পদে ৫৩ জন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন।

খোকশাবাড়ী ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী রাশিদুল ইসলাম রশিদ মোল্লা, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের বর্তমান সভাপতি মো. হেলাল উদ্দিন, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি মো. আব্দুল খালেক, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক মো. আব্দুর রউফ মুকুল, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত প্রার্থী গোলাম হোসেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে বিএনপি নেতা রেজাউল করিম রোকনী, স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান মনজুর রহমান বকুল মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। এছাড়াও সংরক্ষিত ১৫ ও সাধারন পদে ৪৪ জন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন।

ছোনগাছা ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ, বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি এস.এম. সাইফুল ইসলাম, আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুল মালেক, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত মো. রিপন মন্ডল, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ইউনিয়ন সাবেক আহবায়ক আমজাদ হোসেন, ইউনিয়ন বিএনপির সাবেক সভাপতি মো. শাহাদত হোসেন কিরন ও বিএনপি নেতা মো. নাজমুল ইসলাম জমা দিয়েছেন। এছাড়াও সংরক্ষিত ১৩ ও সাধারন পদে ৫৯ জন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন।

শিয়ালকোল ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী সেলিম রেজা, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি গোলাম আজম তালুকদার, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্প্দক আলামিন সেখ, আওয়ামীলীগ নেতা সাইফুল ইসলাম খান, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ প্রার্থী হাফেজ মো. হাবিবুল্লাহ, বিএনপি ইউনিয়ন কর্মী মো. এরশাদ রানা, বিএনপি নেতা মঞ্জুরুল আলম সরকার, বিএনপি নেতা আলহাজ জাহিদুল ইসলাম, স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুস সালাম, স্বতন্ত্র প্রার্থী কায়সার আহমেদ মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এছাড়াও সংরক্ষিত ১৭ ও সাধারন পদে ৪৬ জন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন।

কালিয়া হরিপুর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী আব্দুস সবুর, বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মুফতি আল আমিন সিরাজী, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে বিএনপি নেতা আনিসুর রহমান, স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আব্দুল কাদের সরকার মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এছাড়াও সংরক্ষিত ১২ ও সাধারন পদে ৪৭ জন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন।

রায়গঞ্জ উপজেলার নয়টি ইউনিয়নের মধ্যে ৪৪জন, সংরক্ষিত ১০৮ সাধারন ৩৮৭জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। এর মধ্যে
ঘুড়কা ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী মো. জিল্লুর রহমান তালুকদার, বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে ঘুড়কা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, সলঙ্গা থানা আওয়ামীলীগের সাবেক যুব ও ক্রিড়া বিষয়ক সম্পাদক কে. এম আহসান হাবীব, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে বিএনপি নেতা মো. আবু তালেব খান ও নাজমুল হুদা মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। এছাড়াও সংরক্ষিত ১৩ ও সাধারন পদে ৪১ জন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন।

ধুবিল ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত মিজানুর রহমান রাসেল, বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে ধুবিল ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল করিম সরকার ও সলঙ্গা থানা কৃষকলীগের দপ্তর সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, আওয়ামীলীগের বহিস্কৃত নেতা আব্দুল করিম রেজা ও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সলঙ্গা থানা বিএনপির সদস্য সচিব হাসান ইমাম তালুকদার মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এছাড়াও সংরক্ষিত ১১ ও সাধারন পদে ৪০ জন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন।

ধানগড়া ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত মীর ওবায়দুল্লাহ ও বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে রায়গঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক যুব ও ক্রিড়া বিষয়ক সম্পাদক ফিরোজ উদ্দিন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এছাড়াও সংরক্ষিত ১১ ও সাধারন পদে ৪৩ জন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন।

নলকা ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী আবু বকর সিদ্দিক, বিদ্রোহী প্রার্থী নলকা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আব্দুল হোসেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নলকা ইউনিয়ন বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক আব্দুল গফুর, সাবেক বিএনপি নেতা আব্দুল জব্বার সরকার, নলকা ইউনিয়ন বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক রুহুল আমিন ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত শফিকুল ইসলাম মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এছাড়াও সংরক্ষিত ১৩ ও সাধারন পদে ৪৭ জন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন।

পাঙ্গাসী ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী রফিকুল ইসলাম নান্নু, আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী হিসেবে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আব্দুস সালাম, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মোজাম্মেল হক, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ফজলুর রহমান, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সদস্য এ্যাড জাহিদুর রহিম, ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম, পাঙ্গাসী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক শামসুল ইসলাম, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগীরে উপদেষ্টা মতিউর রহমান, আওয়ামীলীগ নেতা আলী আকবর সরকার, জাসদ মনোনীত প্রার্থী খায়রুল ইসলাম, বিএনপি নেতা রফিকুল ইসলাম, জামায়াত নেতা সালাহ উদ্দিন সেখ ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল করিম মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এছাড়াও সংরক্ষিত ১৫ ও সাধারন পদে ৩৭ জন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন।

ধামাইনগর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত রাইসুল হাসান ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত আব্দুল মজিদ মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এছাড়াও সংরক্ষিত ১১ ও সাধারন পদে ৩৫ জন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন।

সোনাখাড়া ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত আবু হেনা মোস্তফা রিপন ও বিদ্রোহী হিসেবে উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আমজাদ হোসেন সানা মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এছাড়াও সংরক্ষিত ১১ ও সাধারন পদে ৩৬ জন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন।

বহ্মগাছা ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত গোলাম সরোয়ার লিটন, বিদ্রোহী প্রার্থী আওয়ামীলীগ নেতা নাসির উদ্দিন আহমেদ, রায়গঞ্জ উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি কামরুল হাসান সেখ ও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি আবুল কালাম আজাদ মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এছাড়াও সংরক্ষিত ১০ ও সাধারন পদে ৪৭ জন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন।

চান্দাইকোনা ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত আব্দুল হান্নান খান, বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে চান্দাইকোনা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আজমল আকন্দ, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত জাকারিয়া ইসলাম, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে রায়গঞ্জ উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক সেখ, বিএনপি নেতা শাহিনুর ইসলাম খান, মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। এছাড়াও সংরক্ষিত ১১ ও সাধারন পদে ৪৩ জন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন।

About jamuna

আবার চেষ্টা করুন

নির্বাচনী কন্ট্রোল রুমে পাল্টে গেল ভোটের ফল: আদালতে স্বতন্ত্র প্রার্থী

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিরাজগঞ্জ যমুনাপ্রবাহ.কম: সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার বাঙালা ইউনিয়নের পশ্চিম সাতবাড়ীয় এবতেদায়ী মাদ্রাসা ভোট কেন্দ্রে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *