সদ্য সংবাদ
Home / জাতীয় / সিরাজগঞ্জের মহাসড়কে মানুষের ঢল

সিরাজগঞ্জের মহাসড়কে মানুষের ঢল

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || যমুনাপ্রবাহ.কম

সিরাজগঞ্জ: বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম মহাসড়কসহ সিরাজগঞ্জের সকল মহাসড়কে মানুষের ঢল নেমেছে। গার্মেন্টস খুলে দেয়ায় কাজে যোগ দিতে ট্রাক, পিকআপ, মাইক্রোবাস ও রিজার্ভ বাসে ছুটছে মানুষ। শনিবার (৩১ জুলাই) দুপুরের দিকে বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম মহাসড়কের নলকা মোড়, কড্ডার মোড় ও হাটিকমুরুল গোলচত্বর এলাকায় হাজার হাজার গার্মেন্ট শ্রমিকের ঢল দেখা গেছে। ট্রাক-পিকআপে ঝুলে যাচ্ছে মানুষ।

দীর্ঘ প্রায় দুই সপ্তাহ পরে কর্মস্থলে ফিরতে থাকা এসব মানুষের মাঝে করোনা আতংকের কোন লেশমাত্র চোখে পড়েনি। দু-একজনকে মাস্ক পড়া দেখা গেলেও অধিকাংশই ছিল মাস্কবিহিন। সামাজিক দুরত্ব কিংবা স্বাস্থ্যবিধি মানার কোন বালাই নেই। অনেকেই বাস স্টপগুলোতে গাড়ীর জন্য অপেক্ষা করছে। কোনমতে একটি ট্রাক বা পিকআপ পেলেই উঠে পড়ছেন। ভাড়ার বিষয়েও জিজ্ঞাসা করছেন না যাত্রীরা।

কড্ডার মোড়ে গাড়ীর জন্য অপেক্ষা থাকা গার্মেন্টসকর্মী সাখাওয়াত বলেন, এক ঘন্টা ধইর‌্যা খারাইয়া আচি, একটা গাড়ী পাইলেই উইঠ্যা চইল্যা যামু। কিন্তু যাত্রী ভরা ট্রাক আইসত্যাছে। এত ভীড়ের মধ্যে যাওয়াও সম্ভব না। সাবিনা আক্তার নামে নারী গার্মেন্টসকর্মী বলেন, এতদিন পর গার্মেন্টস খুলচে। আমাগোরে যাইতেই অইবো-যেভাবেই সম্ভব। কিসের স্বাস্থ্যবিধি আর কিসের করোনা।

পিক-আপের উপর গাদাগাদি করে বসা যাত্রী উর্মি খাতুন, সাজু, সোহেল, বরকত আলী, সেহেলী খাতুনসহ অনেকেই বলেন, কাল থেকে গার্মেন্টস খুলবে, কষ্ট করে হলেও ঢাকায় যাইতে হবে।

ট্রাক, পিকআপ ও মাইক্রোবাসে কর্মস্থলে ফিরতে থাকা এসব যাত্রীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, গার্মেন্টেসের চাকরীর উপরই তাদের সংসার চলে। চাকরী চলে গেলে আর উপায় থাকবে না। ঈদের আগে যে টাকা নিয়ে তারা বাড়িতে এসেছিলেন তা ইতিমধ্যেই শেষ হয়ে গেছে। এমনকি অনেকে ধার করেও কয়েকদিন ধরে চলেছেন। তাই যে কোনভাবে গিয়ে চাকরীতে যোগ দিতে হবে।

ভাড়ার প্রসঙ্গে জানতে চাইলে যাত্রীরা বলেন, ভাড়া দিগুন, তিনগুন করে নিচ্ছে। আগে বাসেই ভাড়া ছিল আড়াইশো টাকা। সেখানে ট্রাকেই নিচ্ছে জনপ্রতি ৪শ-৫শ টাকা। মাইক্রোবাসে ৮শ থেকে এক হাজার টাকা নিচ্ছে। ভাড়া যতই হোক যেতে তো তাদের হবেই।

সয়দাবাদ পূর্ণবাসন এলাকার ব্যবসায়ী আশরাফুল ইসলাম বলেন, শুক্রবার রাত থেকেই যাত্রীবাহী ট্রাক আর মাইক্রোবাসের ¯্রােত দেখা গেছে এ মহাসড়কে। শনিবার সকাল থেকে যানবাহনের সংখ্যা আরও বাড়ছে।

হাটিকুমরুল হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাহজাহান আলী বলেন, হঠা গার্মেন্টস খুলে দেওয়ায় এভাবে ছুটছে গাড়ী। ট্রাকে ঝুলে ঝুলে নানা দুর্ভোগ মাথায় নিয়ে শ্রমিকেরা তাদের কর্মস্থলে ছুটছে। এটা দেখে আমরাও কঠোর হতে পারছি না।

বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোসাদ্দেক হোসেন বলেন, মহাসড়কের ঢাকামুখী লেনে গাড়ীর প্রচুর চাপ রয়েছে। হাজার হাজার মানুষ ঢাকার পথে ছুটছে। বেশির ভাগই ট্রাক, পিকআপ ও মাইক্রোবাসে যাত্রীরা চলাচল করছে। দু-একটি রিজার্ভ বাস ও সরকারী প্রজেক্টের কিছু বাসও চলাচল করছে।

About jamuna

আবার চেষ্টা করুন

সিরাজগঞ্জে অস্ত্র-গুলিসহ শীর্ষ ছিনতাইকারি গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিরাজগঞ্জ যমুনাপ্রবাহ.কম: সিরাজগঞ্জে ছিনতাই, বিস্ফোরক আইনসহ বিভিন্ন অভিযোগে দায়ের করা একাধিক মামলার আসামী …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *