সদ্য সংবাদ
Home / গুরুত্বপূর্ণ / শত দুর্ভোগ মেনে নারীর টানে ঘরে ফিরছে উত্তরাঞ্চলের মানুষ

শত দুর্ভোগ মেনে নারীর টানে ঘরে ফিরছে উত্তরাঞ্চলের মানুষ

নিজস্ব প্রতিবেদক || যমুনাপ্রবাহ.কম
বাংলাদেশ সময়: ০৯৫০ ঘন্টা: ১২ মে: ২০২১

সিরাজগঞ্জ: প্রখর সূর্য্যতোপের মধ্যে খোলা মিনি ট্রাকে চড়ে বাড়ি ফিরছেন আফিয়া খাতুন। ঘরে তার একটি ছেলে রয়েছে। জীবিকার তাগিদে বাবা-মার কাছে সন্তানকে রেখে স্বামীসহ ঢাকায় থাকেন তিনি।

বগুড়া জেলার শেরপুর উপজেলার বাসিন্দা আফিয়া ও তার স্বামী গার্মেন্টেস ছুটি শেষে বাড়ি ফিরছিলেন। বছরে শুধুমাত্র দুটি ঈদেই তাদের সুযোগ হয় বাড়ি ফেরার। সে সুযোগ হাতছাড়া করতে চাননি এ দম্পত্তি। তাই দুর্ভোগে মেনে নিয়ে দিগুণ ভাড়া দিয়ে ট্রাকযোগে বাড়ি আসছেন তারা।
বুধবার (১২ মে) দুপুরের দিকে বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম সংযোগ মহাসড়কের কড্ডার মোড় এলাকায় গিয়ে দেখা যায় গ্রীষ্মের প্রচন্ড উত্তাপ উপেক্ষা করে ওই মিনি ট্রাকটিতে গাদাগাদি করেই সবাই যাচ্ছিলেন। সবার একসাথে বসার মতো কোন অবস্থাও নেই। পাল্টাপাল্টি করে দাঁড়িয়ে এবং বসে যাচ্ছেন রাজিয়া বেগম, ফুলেরা খাতুন, রিপন মিয়া, আবুল কালামসহ প্রায় ২৫/২৫ জন গার্মেন্টসকর্মী।
তারা বলেন, তারা সবাই বগুড়ার শেরপুর ও ধুনট এবং সিরাজগঞ্জের কাজিপুর, তাড়াশ ও রায়গঞ্জ উপজেলার বাসিন্দা। মঙ্গলবার (১১ মে) গার্মেন্টস ছুটি হয়েছে। রাতেই সবাই মিলে এই মিনি ট্রাকটি রিজার্ভ করেছেন। ভোর চারটার দিকে রওয়ানা দিয়েছেন। রাস্তায় যানজটের কারণে কড্ডার মোড় আসতেই ৮ ঘন্টা সময় লেগেছে। পুরো রাস্তায় অনেক দুর্ভোগ পোহাতে হলেও বাড়ি গিয়ে স্বজনদের মুখ দেখতে পারবেন-এটাই বড় সন্তুষ্টি।
কড্ডার মোড় ও নলকা এলাকায় সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় রৌদ্রের উত্তাপ মাথায় নিয়ে শত শত খোলা ট্রাকে হাজার হাজার মানুষ ঘরে ফিরছেন। দুর্ভোগ যেন এদের যাত্রাপথে কোন প্রভাবই ফেলতে পারেনি।
কোথা থেকে আসছেন জানতে চাইলে ট্রাকের যাত্রী মনির হোসেন হাসিমুখে চিৎকার করে বলেন সাভার থেকে। অপর এক ট্রাকে নার্গিস খাতুন নামে এক নারী হাস্যোজ্জল মুখে তার ছবি তুলতে বলেন।
এমন অসংখ্য গার্মেন্টসকর্মীর মুখে ছিল বিজয়ের হাসি। দূরপাল্লার বাস বন্ধ থাকায় হতাশ হওয়া এসব ঘরে ফেরা মানুষের কাছে যাত্রাপথের দুর্ভোগ যেন কিছুই না।
জানতে চাইলে বেসরকারি চাকরীজীবি সাদ্দাম হোসেন বলেন, আমরা ভাবতেও পারি নাই এবারের ঈদে বাড়িতে ফিরতে পারবো। বাবা-মাকে সাথে নিয়ে ঈদ করবো-এই চিন্তা করেই রাত তিনটার দিকে জিরানী বাজার থেকে ট্রাকে রওয়ানা হয়েছি। সময়ের সাথে সাথে নানা দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে-তবুও শান্তনা বাড়ি তো ফিরতে পেরেছি।

নাটোরের বাসিন্দা রহমত আলী নামে বলেন, বাড়ির কাছাকাছি আসতে পেরেছি-এখন অনেক ভাল লাগছে। ভাড়া কিছুটা বেশি লাগছে। তাতেও সমস্যা নেই। বছরের এই একটি সময়ে স্বজনদের সাথে এক হতে পারবো-এটা যে কত আনন্দের বলে বোঝানো যাবে না।
ঘরে ফেরা যাত্রীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, ট্রাকযোগে ঢাকা থেকে সিরাজগঞ্জ ৫শ থেকে ৭শ টাকা, পাবনা, নাটোর ও বগুড়া ৬শ থেকে ৮শ টাকা পর্যন্ত ভাড়া নেয়া হচ্ছে। ঢাকার সাভার ও গাজীপুরে কালিয়াকৈর থেকে তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়েছে। গরমের পাশাপাশি যানজট যাত্রীদের একেবারে নাকাল করে ফেলেছে। যানজটের ফলে দুই ঘন্টার রাস্তা ৬/৭ ঘন্টায় আসতে হয়েছে। এ কারণে যাত্রীদের কষ্টের মাত্রা আরও বেড়েছে।

বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোসাদ্দেক হোসেন বলেন, মহাসড়কে ঘরমুখো মানুষের ঢল নেমেছে। গাড়ীর চাপ ধীরে ধীরে বাড়ছে। এবং প্রচুর সংখ্যক ঘরে ফেরা যাত্রী ট্রাক, মিনিট্রাকে আসছে। বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্বপাড়ে যানজট থাকলেও পশ্চিমপাড়ে যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।
হাইওয়ে পুলিশের (বগুড়া অঞ্চল) পুলিশ সুপার মো. শামছুল আলম বলেন, মঙ্গলবার বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম মহাসড়ক দিয়ে ৫২ হাজার যানবাহন পার হয়েছে। আজও প্রচুর গাড়ীর চাপ রয়েছে তবে কোথাও কোন যানজট নেই। ঢাকা থেকে কিছু কিছু বাস আসছে-ঈদের আগ মূহুর্তে সেগুলো ফিরিয়ে দেয়ার সুযোগ নেই। তবে উত্তরবঙ্গ থেকে কোন বাস যাচ্ছে না।

About jamuna

আবার চেষ্টা করুন

মা ইলিশ ধরার দায়ে ১৬ জেলের কারাদন্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিরাজগঞ্জ যমুনাপ্রবাহ.কম : সিরাজগঞ্জের তিনটি উপজেলায় যমুনা নদীতে মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযানে ১৬ জেলেকে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *