সদ্য সংবাদ
Home / রাজনীতি / আওয়ামীলীগ / বেলকুচি উপজেলা চেয়ারম্যান ও মেয়রকে নিয়ে এস এম কামালের বক্তব্যের ভিডিও ভাইরাল (ভিডিওসহ)

বেলকুচি উপজেলা চেয়ারম্যান ও মেয়রকে নিয়ে এস এম কামালের বক্তব্যের ভিডিও ভাইরাল (ভিডিওসহ)

নিজস্ব প্রতিবেদক || যমুনাপ্রবাহ.কম

প্রকাশ কাল: ১৫০৭ ঘন্টা: জুন ১৪, ২০২১

সিরাজগঞ্জ: আপনি কবে যোগ দিয়েছেন ? ছাত্রদলের ভিপি ছিলেন। আওয়ামীলীগে এসেেেছন। আওয়ামীলীগ ভদ্রভাবে করতে হবে। সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলা চেয়ারম্যানকে উদ্দেশ্য করে আওয়ামীলীগের রাজশাহী বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন এ কথাগুলো বলেছেন। তিনি উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম সাজেদুল ও তার ভাই বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত পৌর মেয়র সাজ্জাদুল হক রেজাকে উদ্দেশ্য করে বলেন, আমি যদি সাংগঠনিক সম্পাদক থাকি আপনারা কোন কমিটিতে ঢুকতে পারবেন না।

রোববার (১৩ জুন) সন্ধ্যায় সিরাজগঞ্জ শহরের শহীদ এম মনসুর আলী অডিটোরিয়ামে বর্ষীয়ান আওয়ামীলীগ নেতা মোহাম্মদ নাসিমের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত স্মরণ সভায় প্রধান বক্তার বক্তব্যে তিনি দলে বহিরাগত নেতা ও তাদের আশ্রয়দানকারীদের হুঁশিয়ার করে দেন। এস এম কামালের এই বক্তব্য সিরাজগঞ্জে ইতিমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে গেছে। দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা কামালের বক্তব্যেল ভিডিওটি নিজ নিজ ফেসবুক পেইজে শেয়ার করছেন।

তিনি বলেন, মামলা বাঁচানোর জন্য, নিজের পিঠ বাঁচানোর জন্য বিএনপিতে আছেন, যদি কোন নেতার সাথে থাকেন আগামী সম্মেলনে সেই নেতা কমিটিতে থাকতে পারবে না। আমি যদি সাংগঠনিক সম্পাদক থাকি। আমারে যদি উইথড্রো করাইতে পারেন-তাইলে ভাল। আমি বায়োডাটা দেখে- জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাধারণ সম্পাদক আমি পারবো না। কিন্ত বাকিগুলা আমার হাত দিয়েই যাইবো। উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাধারণ সম্পাদক আমি করবো না। কিন্তু বাকিগুলো আমি দেখবো। এইগুলো বাদে আর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাধারণ সম্পাদক ত্যাগি নেতা হতে হবে। যারা বিদ্রোহী প্রার্থী তারা সভাপতি সাধারণ সম্পাদক হইতে পারবে না।

বেলকুচি উপজেলা চেয়ারম্যান ও পৌর মেয়রকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, আমি একটা কথা বলবো, কথাটা প্রকাশ্যে বলা উচি নয়। বেলকুচি উপজেলা চেয়ারম্যান- উনি নাকি বলেন, আমাকে লিখিত দিতে হবে। আপনি কবে যোগ দিছেন? ছাত্রদলের ভিপি ছিলেন। আওয়ামীলীগে আসছেন। আওয়ামীলীগ ভদ্রভাবে করতে হবে। আপনি বিদ্রোহী প্রার্থী-কার লোক আমি জানি না। বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সে ওই দলের পদ থেকে বাদ যাবে। আওয়ামীলীগ করতে পারবেন আপত্তি নাই। কিন্তু নিয়মনীতি মেনে করতে হবে। পৌরসভার মেয়র হইচেন-যুবলীগ থেকে বাদ দিছে। আমি সাংগঠনিক সম্পাদক থাকলে কোন কমিটিতে ঢুকতে পারবেন না।

তিনি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, যারা বিএনপি থেকে আসছেন তারা ক্ষমতায় এসে বিএনপির লোকরে পেট্রোনাইজ করছে। এই ধরণের খবর যদি সত্য হয়ে থাকে তাকে যদি কোন আওয়ামীলীগ নেতা সহযোগীতা করেন, তার অবস্থা কিন্তু খারাপ হবে। নাসিম ভাইয়ের স্মরণসভায় নাসিম ভাইয়ের আদর্শকে বুকে ধারণ করবেন-নাসিম ভাইয়ের মতো ত্যাগী নেতাদের খুঁজে বার করবেন না তাতো হবে না। এ বিষয়ে জেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ তালুকদার বলেন, দলের বিদ্রোহী প্রার্থীদের ব্যাপারে কেন্দ্র তথ্য সংগ্রহ করেছে। সেই তথ্যের ভিত্তিতে কেন্দ্রের সিদ্ধান্তের কথাই হয়তো উনি বলেছেন। এ ব্যাপারে জেলা আওয়ামীলীগের কোন মন্তব্য নেই।

About jamuna

আবার চেষ্টা করুন

মা ইলিশ ধরার দায়ে ১৬ জেলের কারাদন্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিরাজগঞ্জ যমুনাপ্রবাহ.কম : সিরাজগঞ্জের তিনটি উপজেলায় যমুনা নদীতে মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযানে ১৬ জেলেকে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *