সদ্য সংবাদ
Home / রাজনীতি / আওয়ামীলীগ / বেলকুচিতে শোক দিবসের ব্যানার লাগাতে বাঁধাদানের অভিযোগ আ.লীগ নেতার বিরুদ্ধে

বেলকুচিতে শোক দিবসের ব্যানার লাগাতে বাঁধাদানের অভিযোগ আ.লীগ নেতার বিরুদ্ধে

জহুরুল ইসলাম, উপজেলা প্রতিনিধি, বেলকুচি

যমুনাপ্রবাহ.কম: সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ফজলুল হক সরকারের বিরুদ্ধে জাতীয় শোক দিবসের ব্যানার লাগাতে বাধা দেয়ার অভিযোগ উঠেেছ। বিষয়টি ধামাচাপা দিতে বেলকুচি পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে প্রাণনাশের হুমকির মিথ্যা অভিযোগ এনে থানায় জিডিও করেছেন তিনি। বিষয়টি নিয়ে দলের নেতাকর্মীদের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

জানা যায়, জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বেলকুচি পৌরসভার উদ্যোগে গত ১৪ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ সকল শহীদদের ছবি সংবলিত শোক ব্যানার বিভিন্ন স্থানে লাগানো হয়। বেলকুচি উপজেলা আ’লীগ কার্যালয়ে সেই ব্যানার লাগাতে গেলে বেলকুচি উপজেলা আ’লীগের সাধারণ-সম্পাদক ফজলুল হক সরকার বাঁধা দেন বলে অভিযোগ করেছেন বেলকুচি পৌরসভার মেয়র সাজ্জাদুল হক রেজা। এ নিয়ে নেতাকর্মীদের মাঝে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হলে বাধ্য হয়ে শোকের ব্যনার লাগাতে দেন।
এ ব্যপারে মঙ্গলবার (৭ সেপ্টেম্বর) বিকালে বেলকুচি পৌর মেয়র সাজ্জাদুল হক রেজা এই প্রতিবেদককে জানান, বেলকুচি পৌরসভা থেকে বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের শহীদদের প্রতি মাগফেরাত কামনায় দোয়া মাহফিল ও স্মৃতিচারণ এবং বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি সহ কাঙ্গালি ভোজের কর্মসুচি হাতে নেই। সেই কর্মসুচির আলোকে বেলকুচি পৌরসভা কর্তৃক ১৫ই আগস্টে বঙ্গবন্ধুসহ সকল শহীদদের ছবি দিয়ে শোক ব্যানার তৈরি করা হয় এবং এই শোক ব্যানারগুলো পৌরসভার প্রতিটি ওয়ার্ড সহ পৌরসভার অন্তভুর্ক্ত জনবহুল স্থানগুলোতে লাগানো হয়। পৌরসভা কর্তৃক জাতীয় শোক দিবসের সেই ব্যানার ১৪ই আগস্টে বেলকুচি আওয়ামীলীগ কার্যালয়ের সামনে পৌরসভার পিয়ন ব্যানার লাগাতে যায়। তখন বেলকুচি উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ফজলুল হক সরকার বাধা দেয়। শোক দিবসের ব্যনার লাগাতে বাধা দেওয়ার অপরাধ থেকে বাঁচতে ও ঘটনাটিকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে ফজলুল হক সরকার প্রাণনাশের হুমকি দিয়েছি এমন মিথ্যা অপবাদ দিয়ে আমার বিরুদ্ধে থানায় একটি বানোয়াট জিডি করেছে। আমি নাকি ফজলুল হক সরকারকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়েছি। তাকে আ’লীগ কার্যালয় থেকে চলে যেতে বলেছি। তিনি আরও বলেন, এ তথ্য সম্পূর্ন মিথ্যা ভিত্তিহীন রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। এটি সম্পূর্ন ষড়যন্ত্রমুলক সাজানো নাটক। পৌরসভার শোক দিবসের ব্যানার লাগানোর কাজে বাধা দেওয়ায় আমি তীব্র প্রতিবাদ জানাই। এছাড়া পৌরসভার পক্ষথেকে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে। 
এ ব্যপারে বেলকুচি উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ফজলুল হক সরকার জানান, ১৫ আগস্টে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে পৌরসভার ব্যানার আ,লীগ কার্যালয়ে লাগাতে আসলে আমি  ব্যানার লাগাতে বাধা দেই। তখন রুবেল ও আলোক নামের ছেলেকে বলি আ,লীগ কার্যালয়ে ব্যানার লাগাতে অনুমতি লাগে। এই কথা বলার পরে তারা আমাকে গালিগালাজ করে। কিছুক্ষণ পরে বেলকুচি পৌর মেয়র সাজ্জাদুল হক রেজা এসে আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে চলে যায়। পরে দলীয় সিদ্ধান্তে ১৭ তারিখে থানায় জিডি করি। এ বিষয়ে বেলকুচি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) গোলাম মোস্তফা ১৭ তারিখে জিডির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

About jamuna

আবার চেষ্টা করুন

বঙ্গমাতা সাংস্কৃতিক জোটের উদ্যোগে শহীদ শেখ রাসেল দিবস উদযাপন

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিরাজগঞ্জ যমুনাপ্রবাহ.কম: নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *