সদ্য সংবাদ
Home / আন্তর্জাতিক / প্রকাশ্যে এসেই একটানে মাস্ক খুলে ফেললেন ট্রাম্প

প্রকাশ্যে এসেই একটানে মাস্ক খুলে ফেললেন ট্রাম্প

আন্তর্জাতিক বার্তাকক্ষ, যমুনাপ্রবাহ.কম

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সাম্প্রতিক করোনা পরীক্ষা নিয়ে এখনও পর্যন্ত সরকারি ভাবে একটি শব্দও খরচ করেনি হোয়াইট হাউস। কিন্তু তার মধ্যেই শনিবার নির্বাচনী প্রচারে ঝাঁপিয়ে পড়লেন তিনি। এ দিন অবশ্য দৃশ্যতই ‘তরতাজা’ ছিলেন ট্রাম্প। কিন্তু তাঁর স্বাস্থ্য নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে। তবে করোনা সংক্রমণ তাঁকে দমাতে পারেনি। সমর্থকদের উদ্দেশে বক্তৃতা দেওয়ার আগে মাস্কও খুলে ফেলতে দেখা যায় তাঁকে। করোনা আক্রান্ত হওয়ার ন’দিন পর এটাই ছিল ট্রাম্পের প্রথম বার জনসমক্ষে আসা। হোয়াইট হাউসের সাউথ লন। এ দিন দুপুরে সেখানেই জড়ো হয়েছিলেন রিপাবলিক সমর্থকরা। বেশিরভাগেরই গায়ে হালকা নীল টি শার্ট আর মাথায় ‘মেক আমেরিকা গ্রেট এগেন’ স্লোগান লেখা টুপি। এই মঞ্চেই হাসিমুখে ‘নির্বাচনী প্রচার’ সারলেন সদ্য হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাওয়া ট্রাম্প। ‘‘আমার দারুণ লাগছে’’, হোয়াইট হাউসের ব্যালকনিতে পা রেখেই বললেন তিনি। সেই সঙ্গে খুলে ফেললেন নিজের সার্জিক্যাল মাস্কও। সাধারণত ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচার চলে ঘণ্টা দেড়েক ধরে। হোয়াইট হাউসের তরফে বলা হয়েছিল, এ দিন আধ ঘণ্টা বক্তৃতা দেবেন ট্রাম্প। কিন্তু মাত্র ১৮ মিনিটেই থেমে যান তিনি। যদিও হোয়াইট হাউস জানিয়ে দিয়েছে, এটা কোনও নির্বাচনী প্রচার নয়। তবে এর মধ্যেই কখনও রিপাবলিক সমর্থকদের ভোট দিতে উতসাহ দিয়েছেন ট্রাম্প। আবার খড়গহস্ত হয়ে উঠেছেন ডেমোক্র্যাটদের প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী জো বাইডেনের বিরুদ্ধে। সমর্থকদের উদ্দেশে ট্রাম্প এ দিন বলেন, ‘‘আমার খুব ভাল লাগছে। আগামী নির্বাচন আমাদের দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। আপনারা ঘর থেকে বেরোন এবং ভোট দিন।’’ প্রতিপক্ষকে খোঁচা দিয়ে ট্রাম্প বলেন, ‘‘আমাদের প্রতিদ্বন্দ্বীরা অবৈজ্ঞানিক ভাবে লকডাউন করে করোনার প্রভাব থেকে বেরিয়ে আসার প্রক্রিয়া ধ্বংস করে দেবে।’’

গত সপ্তাহেই করোনা ধরা পড়েছিল ট্রাম্পের। আক্রান্ত হন তাঁর স্ত্রী মেলানিয়াও। চিকিতসার জন্য ট্রাম্প ভর্তি হয়েছিলেন মিলিটারি হাসপাতালে। শনিবার হোয়াইট হাউসের চিকিতসক ঘোষণা করেন, প্রেসিডেন্টের থেকে আর ‘রোগ ছড়ানোর ঝুঁকি নেই।’ চিকিতসকরা জানান, ট্রাম্পের শরীরে ‘ভাইরাল লোড’ কমছে। তবে তিনি সম্পূর্ণ ভাবে ভাইরাস মুক্ত কি না তা জানানো হয়নি। আমেরিকার সেন্টার ফর ডিজিস কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন-এর নিয়ম অনুযায়ী, মৃদু অথবা মাঝারি উপসর্গের ক্ষেত্রে ১০ দিন পর আইসোলেশন থেকে বেরিয়ে আসা যাবে। যদিও ট্রাম্পের উপসর্গ কোন পর্যায়ে ছিল তা হোয়াইট হাউসের তরফে জানানো হয়নি। আর তা নিয়েই ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে। আরও পড়ুন: মহারাষ্ট্রকে ছাপিয়ে দৈনিক সংক্রমণে শীর্ষে কেরল, দেশে আক্রান্ত সাড়ে ৭০ লক্ষেরও বেশি

আগামী সোমবার সন্ধেয় স্যানফোর্ডে প্রথম নির্বাচনী প্রচারের কথা ছিল ট্রাম্পের। পরের সপ্তাহে তাঁর পেনসিলভ্যানিয়া এবং ফ্লোরিডাও যাওয়ার কথা। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, প্রেসিডেন্ট ‘সুস্থ’, এটা প্রমাণ করতেই এ দিন হোয়াইট হাউসের ব্যালকনি থেকে সমর্থকদের উদ্দেশে বার্তা দেন ট্রাম্প।

সূত্র: আনন্দবাজার

About jamuna

আবার চেষ্টা করুন

মা ইলিশ ধরার দায়ে ১৬ জেলের কারাদন্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিরাজগঞ্জ যমুনাপ্রবাহ.কম : সিরাজগঞ্জের তিনটি উপজেলায় যমুনা নদীতে মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযানে ১৬ জেলেকে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *