সদ্য সংবাদ
Home / সিরাজগঞ্জ / তাড়াশ / তাড়াশে মদপানে যুবকের মৃত্যু

তাড়াশে মদপানে যুবকের মৃত্যু

উপজেলা প্রতিনিধি||যমুনাপ্রবাহ.কম

প্রকাশ কাল: ০১ঃ০৪ ঘন্টা, ৩০ মে, ২০২১

তাড়াশ: সিরাজগঞ্জের তাড়াশে মদপানে এক যুবকের অকাল মৃত্যু হয়েছে। শনিবার রাতে উপজেলার তালম ইউনিয়নের গোনতা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। মৃত ব্যক্তি ওই গ্রামের আব্দুল হাকিম ফকিরের মেজো ছেলে শরিফুল ইসলাম (২৮)। জানা যায়, প্রতিদিনের ন্যায় গোনতা বাজারে তার চা স্টল রাতে বন্ধ করে বাড়িতে যায়। বাড়ীতে যাওয়ার পর সে অসুস্থ বোধ করে। স্ত্রী ও তার মা অসুস্থ দেখে মাথায় পানি ঢালতে থাকে। গ্রাম্য ডাক্তার এসে প্রাথমিক চিকিসা করে। অবস্থা বেশী খারাপ হলে হাসপাতালে নেওয়ার প্রস্তুতি নিতেই সে মারা যায়। মৃতকালে সে স্ত্রী ও ১টা ৩বছরের মেয়ে সন্তান রেখে গেছেন। এ ব্যাপারে তাড়াশ থানায় অভিযোগ করা হয়েছে।
মৃত ব্যক্তি শরিফুল ইসলামের স্ত্রী বলেন, আমার স্বামী দোকান থেকে বাড়িতে এসেই অসুস্থ হয়। আমি তার মাথায় পানি ঢালতে থাকি। সে অসুস্থ অবস্থায় বলে আমি দোকান থেকে আসার সময় আলতাব হোসেনের ছেলে আব্দুল হান্নান,সরবেশের ছেলে নজরুল ইসলাম ও মৃত আলীম উদ্দিনের ছেলে দুদু আমাকে জোর করে হারবালের ওষধ খাওয়ায়। তার পর থেকেই আমার বুকে ব্যথা হতে থাকে। সে মারা যাওয়ায় আব্দুল হান্নানের মোটর সাইকেল আটকিয়ে রাখা হয়েছে।
অভিযুক্তকারী আব্দুল হান্নান বলেন, শরিফুল মারা যাওয়া বিষয়ে আমাকে যে দোষ দেওয়া হচ্ছে তা সম্পুন্ন মিথ্যা । সারাদিন ওর সাথে আমার দেখা নেই। আমি দোকান বন্ধ করে বাড়িতে এসে খাওয়া দাওয়া করে শুয়ে পরি। রাত ১১টার দিকে শরিফুলের ছোট ভাই আমাকে ফোন দিয়ে বলে কাকা আমার ভাই অসুস্থ । আপনার গাড়ীটা নিয়ে আসেন ডাক্তারের কাছে নিতে হবে। আমি গাড়ী নিয়ে যাই। তাকে অসুস্থ দেখে ধরে গাড়ী তুলতেই মারা যায়।
আরেক জন অভিযুক্তকারী নজরুল বলেন, আমি দোকান বন্ধ করে সন্ধ্যা ৭.৩০ টায় লাউতা যাই। সকালে বাজারে এসে জানতে পারি শরিফুল মারা গেছে। অতচ আমার নামে মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করছে।
এ ব্যাপারে তাড়াশ থানা অফিসার ইনচার্জ ফজলে আশিক বলেন, অভিযোগ পেয়ে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

About jamuna

আবার চেষ্টা করুন

মা ইলিশ ধরার দায়ে ১৬ জেলের কারাদন্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিরাজগঞ্জ যমুনাপ্রবাহ.কম : সিরাজগঞ্জের তিনটি উপজেলায় যমুনা নদীতে মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযানে ১৬ জেলেকে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *