সদ্য সংবাদ
Home / অপরাধ / টাকা ছাড়া সুবিধাভোগীদের কার্ড করে দেন না মেম্বর

টাকা ছাড়া সুবিধাভোগীদের কার্ড করে দেন না মেম্বর

নিজস্ব প্রতিবেদক || যমুনাপ্রবাহ.কম

প্রকাশ কাল: ২০১৬ ঘন্টা, জুন, ২০২১

সিরাজগঞ্জ: বয়স্ক, বিধবা কিংবা প্রতিবন্ধী ভাতা- টাকা ছাড়া কোন ভাতার কার্ডই টাকা পান না সিরাজগঞ্জের কাজিপুর উপজেলার সোনামুখী ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের সুবিধাভোগীরা। ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য শফিকুল ইসলাম।

কার্ড চাইতে গেলেই খরচের কথা বলেন তিনি। কখনো অগ্রিম টাকা, কখনো কাজ শেষে, কখনো বা ভাতার প্রথম কিস্তির একটি অংশ দিতে হয় তাকে। আর টাকা বা কমিশন না দিলে কার্ড জোটেনা সুবিধাভোগীদের কপালে। কার্ড হওয়ার পরে টাকা দিতে অস্বীকার করলে কার্ড বাতিল করার ভয়ভীতিও দেখান তিনি। টাকা দেওয়ার বিষয়টি কাউকে জানালে তার হেনস্তার শিকার হতে হয় সাধারণ জনগণের।ভুক্তভোগীরা ওই ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে এমনই অভিযোগ তুলেছেন। সম্প্রতি ওই এলাকায় সরেজমিন গেলে ভুক্তভোগীরা এমন অভিযোগ জানায়।

তারা ওই ইউপি সদস্যের কার্ড বাণিজ্যের বিষয়টি এই প্রতিবেদকের নিকট খোলাসা করেন। এসময় রৌহাবাড়ি উত্তরপাড়া গ্রামের আব্দুল মান্নান বলেন, “আমার ছেলের প্রতিবন্ধীর কার্ড করার জন্য ৭ হাজার টাকা চায়। কার্ড করা হয়ে গেলে একদিন একাউণ্টে টাকা আসে। পরে মেম্বর এসে বলে টাকাগুলো বের করে আমাকে দাও। টাকা উঠিয়ে আনার পরদিন সকালে এসে আমার কাছ থেকে ৬হাজার টাকা নিয়ে যায়।” একই গ্রামের আব্দুস সামাদের স্ত্রী আলেয়া জানান, “অনেক ধর্ণা দেয়ার পর মেম্বর বলে আইডি কার্ড আর ছবি নিয়ে যোগাযোগ করতে। পরে ওগুলো নিয়ে তার বাড়িতে যাই। কার্ড হওয়ার পরে যে টাকা আসবে তার প্রথম কিস্তি তাকে দিতে বলে।” আবু বক্কার জানান, “আমার ছেলের প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ড করে দেয় মেম্বর। প্রথম কিস্তির টাকা মেম্বর নিজেই তুলে এনে আমাকে দেয়। কিন্তু কার্ডে লেখা আছে ৯ হাজার আর বইসহ আমাকে দেয় ২২৫০টাকা।” একই গ্রামের মকবুলের স্ত্রী জবেদা খাতুন বলেন, “আমার ছেলে বউয়ের প্রতিবন্ধীর ভাতা কার্ড করে দেয়ার জন্য মেম্বরকে বলেছিলাম। সে ৪ হাজার টাকা চেয়েছিল। টাকা দিতে পারি নাই বলে কার্ড করে দেয় নাই।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত ইউপি সদস্য শফিকুল ইসলাম বলেন, “ভাতার কার্ড করে দেয়ার জন্য আমি কোন টাকা নেই নি। এগুলো বানোয়াট। আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য আমার প্রতিপক্ষ তাদেরকে দিয়ে আমার নামে বদনাম রটাচ্ছে।

কাজিপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহিদ হাসান সিদ্দিকী জানান, “বিষয়টি নিয়ে এর আগেও একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছিলাম। নোটিশও করেছিলাম আমার কার্যালয়ে আসতে। ইউপি সদস্য এসেছিলেন কিন্তু অভিযোগকারীরা আসেননি। যদি ভুক্তভোগীরা জবানবন্দি দিতে পারে তাহলে ওই ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

About jamuna

আবার চেষ্টা করুন

বঙ্গমাতা সাংস্কৃতিক জোটের উদ্যোগে শহীদ শেখ রাসেল দিবস উদযাপন

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিরাজগঞ্জ যমুনাপ্রবাহ.কম: নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *