সদ্য সংবাদ
Home / সিরাজগঞ্জ / উল্লাপাড়া / উল্লাপাড়ায় ধর্ষন চেষ্টা মামলার সাক্ষী দেয়ায় ছিনতাই মামলার আসামী হলেন তারা

উল্লাপাড়ায় ধর্ষন চেষ্টা মামলার সাক্ষী দেয়ায় ছিনতাই মামলার আসামী হলেন তারা

উল্লাপাড়া প্রতিনিধি, যমুনাপ্রবাহ.কম

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার সলংগায় গৃহবধু ধর্ষন চেষ্টা মামলার ৮ সাক্ষীকে ছিনতাই ও মারপিট মামলার আসামী করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

রোববার দুপুরে  উল্লাপাড়ার হাটিকুমরুল সাখাওয়াত এইচ মেমোরিয়াল হাসপাতাল মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে এমন অভিযোগ করেন আসামীদের পরিবারবর্গ। এরা হলেন, সলংগা থানার খারিজা ঘুঘাট গ্রামের আনিছুর রহমান (৪০), ছরোয়ার হোসেন (৩০), আব্দুল আলিম (৩৮), আবু তাহের (২৫), ফরিদুল ইসলাম (২৫), মজনু মিয়া (২৭), খলিলুর রহমান (৩৭) ও রোকন শেখ (৩০)।

এদের সকলেই ওই গ্রামের এক গৃহবধুকে ধর্ষন চেষ্টার মামলায় এরা সাক্ষী ছিলেন। মামলার এক নম্বর আসামী আব্দুল হান্নানের বড় ভাই একই গ্রামের আব্দুল মান্নান বাদি হয়ে সলংগা থানায় কথিত সাক্ষীদের বিরুদ্ধে মারপিট ও অর্থ ছিনতাইয়ের মামলা দায়ের করেছেন। মামলার আসামীরা দ্বিতীয় দফা এই মামলাটি সম্পূর্ণ মিথ্যা বলে গণমাধ্যম কর্মীদের কাছে অভিযোগ করেছেন।

সংবাদা সম্মলেনে আসামীদের পরিবারের সদস্যরা বলেন, গত সেপ্টেম্বর মাসের ২৭ তারিখে খারিজা ঘুঘাট গ্রামের এক গৃহবধুকে একই গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে আব্দুল হান্নান ধর্ষনের চেস্টা করে। এ ব্যাপারে ২৮ সেপ্টেম্বর সলংগা থানায় ধর্ষন চেষ্টার শিকার ওই গৃহবধু হান্নানের বিরুদ্ধে একটি ধর্ষন চেষ্টা মামলা করেন (নম্বর ৩৫/২০৮৩)। এই মামলায় গ্রামের উল্লিখিত ৮ ব্যক্তিকে সাক্ষী করা হয়। এসব সাক্ষী থানায় তদন্তকালে সাক্ষ্য প্রদান করেন। আর এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ধর্ষন চেষ্টা মামলার এক নম্বর আসামী আব্দুল হান্নানের বড় ভাই আব্দুল মান্নান ১ অক্টোবর কথিত সাক্ষীদের বিরুদ্ধে ছিনতাই ও মারপিটের মিথ্যা মামলা দায়ের করেন সলংগা থানায়। বর্তমানে আব্দুল হান্নান ও তার ভাইয়েরা সাক্ষীদেরকে নানা ভাবে ভয়ভীতি প্রদর্শন ও হুমকি প্রদান করছেন। এ অবস্থায় চরম নিরাপত্তাহীন হয়ে পড়েছেন এই ৮ সাক্ষী। তারা বিষয়টির সুষ্ঠু তদন্ত করে মিথ্যা মামলার বাদির বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য প্রশাসনের প্রতি দাবি জানান। ছিনতাই ও মারপিট মামলার বাদি আব্দুল মান্নানের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

এ ব্যাপারে সলংগা থানায় যোগাযোগ করলে, পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ হুমায়ন কবির জানান, ধর্ষন চেষ্টা মামলার সাক্ষীদের বিরুদ্ধে দায়ের করা ছিনতাই ও মারপিট মামলাটি থানায় গ্রহণ করা হয়েছে। তবে পুলিশ এ ব্যাপারে যথাযথ তদন্ত শুরু করেছে। এই মামলায় বাদির অভিযোগের সত্যতা না পাওয়া গেলে পুলিশ অবশ্যই বাদির বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেবে। ধর্ষন চেষ্টা মামলার আসামী আব্দুল হান্নানকেও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে উল্লেখ্য করেন পরিদর্শক (তদন্ত)।

About jamuna

আবার চেষ্টা করুন

মোহাম্মদ নাসিম স্মরণে বঙ্গমাতা সাংস্কৃতিক জোটের আলোচনা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

ঢাকা অফিস || যমুনাপ্রবাহ.কম প্রকাশ কাল: ১৮১৭ ঘন্টা, ২০ জুন, ২০২১ বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য, …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।