সদ্য সংবাদ
Home / কৃষি ও শিল্প / ইছামতি নদী সংস্কার না করায় বিপাকে রায়গঞ্জের কার্ডধারী মৎস্যজীবিরা

ইছামতি নদী সংস্কার না করায় বিপাকে রায়গঞ্জের কার্ডধারী মৎস্যজীবিরা

রায়গঞ্জ থেকে এসএম জাকারিয়া || যমুনাপ্রবাহ.কম
সিরাজগঞ্জ: দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না হওয়ায় ইছামতি নদীটি অচল হয়ে পড়েছে। প্রসেস মিলের বর্জে নদীর পানি হয়েছে বিষাক্ত। তার উপর কচুরিপানায় সয়লাব হয়ে আছে এ নদীটি। এর ফলে সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জ উপজেলার হাট পাঙ্গাসী এলাকার মৎস্যজীবিরা পড়েছে চরম বিপাকে।

সম্প্রতি সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়,  ইছামতি নদীর হাট পাঙ্গাসী ও এর আশপাশের এলাকা দীর্ঘদিন ধরে কচুরি পানায় ভরে আছে। তার উপর সুতা-কাপড় ও  প্রসেস মিলের পানি এবং বিভিন্ন র্বজ্য ফেলে নদীর পানিকে বিষাক্ত করে রাখা হয়েছে। ফলে মাছসহ জলজ প্রাণি মরে যাচ্ছে। নদীর পানির রং কালো ও দুর্ঘন্ধযুক্ত হওয়ায় নদীপারের লোকজন মানুষ গোসল ও পারিবারিক কাজও করতে পারছেনা।  এদিকে এ নদীটি অচলাবস্থার কারণে মাছ শিকার করতে না পারায় মৎস্যজীবিরা পরিবার পরিজন নিয়ে দুর্বিসহ জীবন যাপন করছে।

পাঙ্গাসী ইউনিয়নের হাটপাঙ্গাসী গ্রামের হলদার পাড়ার মৎস্য আহরণকারী নিখিল হালদার, প্রদীপ হালদার, নিলা, বিমল, মানিক, রাখাল, সাধনসহ অনেকেই বলেন, আমাদের এই নদীতে দীর্ঘদিন ধরে কচুরি পানা আটকে থাকা  ও পানি বিষাক্ত হওয়ার কারনে আমরা মৎস্য আহরন করতে পারছিনা।
করোনাকালীন মহামারির সময় আমরা কর্মহীন হয়ে পড়েছি। তার উপর সরকারি প্রনোদনা ও সহায়তা না পেয়ে পরিবার নিয়ে অতি কষ্টে জীবন যাপন করছি। কোন উপায় না পেয়ে সিরাজগঞ্জ জেলা মৎস্য র্কমর্কতার অফিস ও  উপজেলা মৎস্য র্কমর্কতা বরাবর লিখিত একটি অভিযোগ দায়ের করেছি। তারা অবিলম্বে প্রসেস মিলের বিষাক্ত পানি নদীতে গড়া বন্ধ করা সহ নদী সংস্কারের মাধ্যমে নব্যতা ফিরে আনতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার জোর দাবী জানান।
বেজঁগাতি প্রসেস মিল মালিকের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা নিয়ম মেনেই  মিল পরিচালনা করছি। মাছ মরার কারন কচুড়ি পানাকেই দায়ি করেন এখানকার প্রসেস মিল মালিকেরা।
এ ব্যাপারে জেলা মৎস্য কর্মকর্তা সাহেদ আলী জানান, আমরা অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত পূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবো।

About jamuna

আবার চেষ্টা করুন

বঙ্গমাতা সাংস্কৃতিক জোটের উদ্যোগে শহীদ শেখ রাসেল দিবস উদযাপন

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিরাজগঞ্জ যমুনাপ্রবাহ.কম: নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *